মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

প্রারম্ভীকা

কিছু কথাঃ

চার দশককের ও বেশী সময় ধরে চলছে আমাদের আর্থসামাজিক মুক্তির নিরচচ্ছিন্ন সংগ্রাম। কিন্তু কাঙ্কিত সে লক্ষ্য পূরণ না হওয়ায় স্বাধীনতার প্রকৃত অর্থে গণ মানুষের কাছে অনেক দিন পর্যন্ত অর্থবহু হয়ে উঠেনি। এ সংগ্রামে আলোক বর্তিকা হিসেবে এসেছে বর্তমান সরকারের প্রণীত দিন বদলের সনদ, যা ২০২১ সাল নাগাদ স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তীর বছরে বাংলাদেশ কে মধ্যম আয়ের একটি দেশ হিসেবে বিশ্বের মানচিত্রে পরিচিত করবে।আর এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে তথ্য প্রযু্ক্তিতে দ্রুত অগ্রসরমান বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলার বিকল্প নেই। বিষয়টি উপলব্ধি করে রূপকল্প ২০২১ এ সরকার তথ্য প্রযু্ক্তির ক্ষেত্রে বিস্তারিত কর্ম পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। প্রচলিত সেবা প্রদানের ধারার বিপরীতে তথ্য প্রযু্ক্তির মাধ্যমে জনগনের কাছে সরকারী সেবা সূলভ করে তোলার জন্য সরকারের এ এক যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত। এর অংশ হিসেবে দেশজুড়ে শুরু হয়েছে এক বিশাল কর্মযজ্ঞ। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গৃহীত পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে আইটি শিল্পের উন্লয়ন, মানব উন্নয়ন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে শিক্ষা, বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযু্ক্তি খাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ প্রদান, বিজ্ঞান ও প্রযু্ক্তি শিক্ষাকে বিশেষ ভাবে উৎসাহিত করা, বিজ্ঞান ও গভেষণাকর্মের সুযোগ বৃদ্ধি , আই সি টি খাতের সম্ভাবনাকে সার্থক করে তোলার ব্যবস্থা গ্রহণ। দেশের প্রতিভাবান তরুণ ও আগ্রহী উদ্যোক্তাদের সর্বতোভাবে সহায়তা দিয়ে সফটওয়্যার শিল্প ও আই টি সার্ভিসের বিকাশ সাধনের মাধ্যমে রফতানি বৃদ্ধি ও কম সংস্থানের ব্যাপক সুযোগ সৃষ্টি। “জনগণের দোর গোড়ায় সেবা”  এই মূলমন্ত্রে দীক্ষিত বর্তমান সরকারের ভিশন হচ্ছে ২০২১ সালে স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তীতে বাংলাদেশ কে পরিপূর্ণরূপে তথ্য প্রযু্ক্তি সমৃদ্ধ। “ডিজিটাল বাংলাদেশ” হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা ।এটি নিছক কোন শব্দগুচ্ছ নয়, “ডিজিটাল বাংলাদেশ” হলো শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান,দারিদ্র্য বিমোচনসহ গণমানুষের আকাঙ্খা বাস্তবায়নে প্রযুক্তির লাগসই প্রয়োগের একটি আধুনিক দর্শন। এ দর্শনের মূল উপজীব্য হলো জনগণের ক্ষমতায়ন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে সুশাসন প্রতিষ্ঠা এবং সর্বোপরি সরকারি সেবা সমূহ জনগণের কাছে নিয়ে যাওয়া। এ রোডম্যাপ  বাস্তবায়িত হলে জনগণের দোরগোড়ায় শুধ নয়, সরকারী সকল সেবা জনগণের হাতের মুঠোয় নিয়ে আসা সম্ভব হবে বলে আশা করা যায়।

ওয়েব পোটালঃ

এই ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে ইতিহাস-ঐতিহ্য, ইউনিয়ন পরিষদের কার্যাবলী, বর্তমান পরিষদ, বিভিন্ন ধরনের সেবা, সরকারী-বেসরকারী সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান, স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় তথ্য পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে মানুষ জানতে পারবে। তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর আধুনিক সমাজের সাধারণ মানুষ খুব সহজে তারা সেবা গ্রহণ, সেবাগ্রহণের ধাপ ও সেবামুল্য সর্ম্পকে এ ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে জানতে পারবে। ফলে গ্রামীণ প্রান্তিক মানুষ আমলাতান্ত্রিক জটিলতা ও দালালদের দৌরাত্য থেকে মুক্তি পাবে। সরকারের পরিকল্পনার সাথে শতভাগ একাত্ম হয়ে গত প্রায় দুই বছর ধরে একটি পরিপূর্ণ ওয়েব পোর্টাল নির্মাণে নিরলসভাবে কাজ করে আসছি আমরা। চেষ্টা করেছি ইউনিয়নের যাবতীয় তথ্যের সন্নিবেশ ঘটিয়ে একটি পরিপূর্ন ওয়েব পোর্টাল উপহার দিতে। আমরা সামর্থের সবটুকু আন্তরিকতা ও ভালোবাসা ঢেলে দিয়ে এই ওয়েব পোর্টাল তৈরীর চেষ্টা করেছি। আমার কতটুকু পেরেছি তার বিচারের ভার আপনাদের উপরই থাকল। তবে এ ওয়েব পোর্টাল নির্মাণে ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সচিব ও এলাকার অসংখ্য শুভানূধ্যায়ী আমাদের সর্বোচ্চ সহযোগিতা করেছেন। আমরা তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।

মানুষ ভুলের উর্ধ্বে নয়। আমাদের সীমাবদ্ধতা ও অজ্ঞতাবশত এ পোর্টালে কোন ভুলভ্রান্তি থাকা অস্বাভাবিক নয়। এই ওয়েবপোর্টালে প্রকাশিত যেকোন তথ্য আপনার কাছে ভুল কিংবা অসংগতি পরিলক্ষিত হলে আমাদের জানাবেন। আপনার দেয়া তথ্য যাচাই বাচাই করে পরবর্তীতে ওয়েবপোর্টালে সংযোজন, বিয়োজন, সংশোধন উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। যেহেতু এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া সেহেতু এই ওয়েব পোর্টালে নতুন কোন তথ্য বা উন্নয়নের জন্য আপনার যেকোন পরামর্শ আমরা সাদরে গ্রহন করব।

মোঃ আলী হোসেন

ছবি



Share with :
Facebook Twitter